Skip to main content
আসুন পাইথন শিখি - SKJOY

আসুন পাইথন শিখি – পরিচয়, কোডিং পরিবেশ তৈরী এবং প্রথম প্রোগ্রাম।

নমস্কার! শুভ সন্ধ্যা! স্বাগত আপনাকে প্রোগ্রামিং এর দুনিয়ায়। প্রোগ্রামিং এর মত দারুণ একটি বিষয় শেখবার ইচ্ছা আপনি প্রকাশ করেছেন এজন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আসুন পাইথন শিখি । অন্যান্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের মত পাইথনও একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। তবে অন্যান্য ল্যাঙ্গুয়েজ অপেক্ষা এর সিনট্যাক্স অনেক সংক্ষিপ্ত এবং ভাষার গঠনশৈলী সহজবোধ্য। আপনি যদি এর আগে কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নাও শিখে থাকেন, তবে পাইথন দিয়ে শুরু করতে পারেন আপনার প্রোগ্রামিং লাইফ।

পাইথন একটি শক্তিশালী অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। ১৯৮০ সালে গুইডো ভ্যান রাসম প্রথম ডিজাইন শুরু করেন এবং ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রথম এটি প্রকাশ করেন। পাইথনের গঠনশৈলী এবং ব্যবহার সহজ হওয়ায় যেকেউ সহজে এটি শিখতে পারে। রয়েছে সমৃদ্ধ স্ট্যান্ডার্ড লাইব্রেরী।

পাইথন কেন শিখব?

ভাল প্রশ্ন! চলুন জেনে নিই কেন পাইথন শিখবেন।

  • বর্তমানে বিশ্বজুড়ে পাইথন প্রোগ্রামারদের চাহিদা অনেক।
  • অন্যান্য ল্যাঙ্গুয়েজ অপেক্ষা সহজ গঠনশৈলী।
  • নতুনদের জন্য সহজতর একটি ল্যাঙ্গুয়েজ।
  • রয়েছে বিশাল অনলাইন কমিউনিটি। যা আপনার সমস্যা সমাধানে সহায়ক হবে।
  • সহজ সিনট্যাক্স – পাইথনে কোড লেখা এবং পড়া সহজ।

পাইথন দিয়ে কোন কাজগুলো করা যাবে?

হ্যাঁ, এটা অবশ্যই জানা জরুরি যে, আমরা পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখে কোন কাজ গুলো করতে পারবো। উল্লেখযোগ্য কিছু কাজ এখানে উল্লেখ করছি।

  • বর্তমানে বহুল আলোচিত ডেটা সায়েন্স এবং মেশিন লার্নিং নিয়ে কাজ করতে চাইলে পাইথন হতে পারে প্রথম পছন্দ।
  • আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে কাজ করতে চাইলে পাইথন প্রোগ্রামিং শেখা বাধ্যতামূলক বলা যায়।
  • ডেক্সটপ এবং মোবাইলের জন্য সফটওয়্যার তৈরী করা যায় পাইথন দিয়ে।
  • পাইথনের PyGame ব্যবহার করে আপনি গেম তৈরী করতে পারবেন।
  • রাসব্রেরি পাই এর মত হার্ডওয়্যার দিয়ে IOT প্রজেক্ট করতে পারবেন পাইথন ব্যবহার করে।
  • পাইথন দিয়ে ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করতে পারবেন।

এবার চলুন বড় বড় কিছু সংস্থার কথা জেনে নেওয়া যাক যারা পাইথন ব্যবহার করছে।

যারা পাইথন ব্যবহার করছে

  • গুগল (Google)
  • নাসা (NASA)
  • রেডিট (Reddit)
  • মজিলা ফায়ারফক্স (Mozilla Firefox)
  • ইন্সটাগ্রাম (Instagram)
  • পিবিএস (PBS)
  • ড্রপবক্স (Dropbox)

আসুন পাইথন শিখি

পাইথন প্রোগ্রামিং শিখতে গেলে আপনার প্রয়োজন হবে একটি কম্পিউটার অথবা মোবাইল ফোনের। অ্যান্ড্রয়েডের জন্য Dcode নামে একটি অ্যাপস রয়েছে প্লেস্টোরে যা ব্যবহার করে পাইথন প্যাকট্রিস করা যাবে। আপনার কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেম যদি লিনাক্স অথবা ম্যাক হয় তবে পাইথন প্রি-ইন্সটলড থাকে। আর উইন্ডোজ ব্যবহারকারী হলে পাইথন ইন্সটল করে নিতে হবে।

চলুন দেখে নিই উইন্ডোজে পাইথন কিভাবে ইন্সটল করতে হয়। প্রথমে পাইথনের অফিসিয়াল সাইট থেকে আপনার কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেমের বিট অনুযায়ী পাইথন ডাউনলোড করে নিন।

উইন্ডোজে পাইথন ইন্সটল

এবার ডাউনলোড করা ফাইলের উপর ডাবল ক্লিক করে ওপেন করুন। আপনাদের সুবিধার জন্য ইন্সটলেশনের অংশটুকু স্ক্রিন রেকর্ড করেছি। আশাকরি পাইথন ইন্সটল করতে কোন অসুবিধা হবেনা।

আমি F ড্রাইভে ইন্সটল করেছি। আপনি যেকোন ড্রাইভে করতে পারেন। সঠিকভাবে পাইথন ইন্সটল সম্পূর্ণ করলে এবার আপনি পাইথনে প্রথম প্রোগ্রাম লেখার জন্য প্রস্তুত।

পাইথনে প্রথম প্রোগ্রাম

প্রথম প্রোগ্রাম লেখার আগে এটা জেনে রাখা ভাল যে আমরা সবে মাত্র পাইথন প্রোগ্রামিং শুরু করছি। তাই এরকম চিন্তা মাথায় আনবেন না যে দুদিন পরেই আপনি কোন GUI এপ্লিকেশন তৈরী করে ফেলবেন। আমরা ধাপে ধাপে এগোবো। সময় লাগবে, সাথে প্রচুর ধৈয্য থাকা লাগবে। কারণ প্রথম দিকে প্রোগ্রামিং অনেকটা নিরামিষের মত লাগে।

আমরা পাইথনের বেসিক প্রোগ্রামিং কম্পিলিট করব উইন্ডোজের কমান্ড লাইনে। তারপর আলাদা IDE ব্যবহার করব। জেনে রাখা ভাল যে কমান্ড লাইনে এক লাইনের বেশী কোড লেখা যায়না। প্রথমে উইন্ডোজের সার্চ বক্সে লিখুন Command Prompt এবার ক্লিক করে Command Prompt এপ্লিকেশন টি ওপেন করুন।

আসুন পাইথন শিখি - SKJOY
Command Prompt

তাহলে নিচের মত ইউজার ইন্টারফেস চলে আসবে। এখানে আমরা কোড লিখব।

আসুন পাইথন শিখি - SKJOY
Command Prompt

এবার Command Prompt এ লিখুন python তারপর ইন্টার প্রেস করুন। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে পাইথনের ভার্সন সহ নিচের মত ইনফরমেশন দেখাবে। এখানে >>> এর মানে হল পাইথন ইন্টারপ্রেটার পাইথন স্টেটমেন্ট নেবার জন্য রেডি।

আসুন পাইথন শিখি - SKJOY

পাইথনে যেকোন ইনফরমেশন প্রিন্ট করাবার জন্য print() ফাংশন ব্যবহার করা হয়। print() ফাংশনের মধ্যে আপনি যা লিখবেন তাই প্রিন্ট হয়ে আউটপুটে দেখাবে। এবার কমান্ডলাইনে লিখুন print(“Hello world”) তারপর ইন্টার প্রেস করুন। তাহলে পরের লাইনে নিচের মত Hello world লেখাটি দেখতে পারবেন।

আসুন পাইথন শিখি - SKJOY
পাইথন – প্রথম প্রোগ্রাম

অভিনন্দন! আপনি সফলভাবে প্রথম প্রোগ্রাম লিখে রান করাতে পেরেছেন। এখন Hello world এর স্থলে আপনি যায় লিখে রান করান না কেন আউটপুটে তাই আসবে। যেমন print(“I love Bangladesh”) লিখে ইন্টারপ্রেস করলে আউটপুট আসবে I love Bangladesh

ভিডিও

প্যাকট্রিসের অংশটুকুর স্ক্রিন রেকর্ড করা হয়েছে। যা আপনার শেখার জন্য সহায়ক হবে। আসুন পাইথন শিখি টিউটোরিয়াল সিরিজের প্রত্যেকটা টিউটোরিয়ালের শেষে এরকম ভিডিও দেওয়া থাকবে।

পাইথন নিয়ে আরো লেখা পাবেন পাইথন বিভাগে

আজ এপর্যন্ত। কথা হবে পরবর্তী টিউটোরিয়ালে। পরামর্শ হল, কোড দেখে দেখে লিখুন। মনে রাখবার চেষ্টা করুন। কিন্তু কপি করে পেষ্ট করবেন না। যেকোন সমস্যায় কমেন্ট করে জানাবেন। ফেসবুকে আমাকে পাবেন এখানে। হ্যাপি প্রোগ্রামিং।

Facebook Comments

S.k.joy

খুব সাধারণ একজন। বসবাস গ্রামে। জন্ম, বেড়ে উঠা এখানেই। অসম্ভব ভালবাসা এই গ্রামীন জীবন, প্রকৃতি আর পরিবেশের প্রতি। কাজ পড়াশোনার ক্ষেত্রে বার বার সুযোগ এলেও শহরবাসী হয়ে উঠতে পারিনি শেষ পর্যন্ত। শহরের অতি আধুনিকতা, কংক্রিটে মোড়া সুউচ্চ অট্টেলিকায় বন্দি জীবন আমায় কখনও আর্কষিত করতে পারিনি। খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে মেঠো পথে বেরিয়ে পড়ি সকালটাকে উপভোগ করতে। রাস্তার দুপাশে সারি সারি গাছ গুলোতে জেগে উঠা পাখিগুলো আমায় স্বাগত জানায়। বুক ভরে নিশ্বাস নিই। শিশিরে ভেজা ঘাস গুলো প্রতি মুহুর্তে সকালের কোমলতাকে জানান দেয়। সূর্যের রোদ সবার আগে গায়ে মেখে ফিরে আসি। দাদু-ঠাম্মা, ছোট ছোট ভাই বোন সবাইকে পরিবার। এইতো জীবন। খুশিতে ভরা জীবন। দূরে গিয়ে সবার থেকে আলাদা হয়ে নিজের মত থাকার মধ্যে জীবনের কোন মানে খুঁজে পাইনা আমি।