Skip to main content

NodeMcu esp8266 কি? কি কাজে ব্যবহার করা যায়? দাম কত?

নমস্কার! বৃষ্টিভেজা সকালে সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি নতুন ব্লগে। আজ আমরা জানবো NodeMcu esp8266 কি, কি কাজে ব্যবহার করা যায়, দাম কত এসব সম্পর্কে। NodeMcu esp8266 নিয়ে লাষ্ট দুইটা ভিডিও প্রকাশ করার পর অনেকেরই এইটা সম্পর্কে বেশ কৌতুহল দেখতে পেয়েছি। সেখান থেকেই এই ব্লগ লেখার প্রয়াস।

NodeMcu esp8266 কি?

NodeMcu esp8266 হল একটি ওয়াইফাই নির্ভর ওপেনসোর্স ডেভেলপমেন্ট বোর্ড। এটি মূলত IOT(Internet of Things) প্রজেক্টের জন্য ব্যবহার করা হয়। সহজ বাংলায় IOT হল, ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেকোন ডিভাইস কন্ট্রোল। সহজ উদাহরণ দিয়ে বলতে গেলে, এই বোর্ডটি ব্যবহার করে আপনি আপনার বাসার ফ্যান, লাইট পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকেই কন্ট্রোল করতে পারবেন। দারুণ না? চলুন এবার NodeMcu esp8266 বোর্ডটির ছবি দেখে নেওয়া যাক।

NodeMcu esp8266 - SKJOY
NodeMcu esp8266 ডেভেলপমেন্ট বোর্ড

NodeMcu esp8266 ডেভেলপমেন্ট বোর্ডটি হল esp8266 মডিউলের একটি পরিপূর্ণ রুপ। এখন কথা হল তাহলে esp8266 মডিউল আবার কি! এটি ব্লুটুথ মডিউলের মতই একটি মডিউল। ব্লুটুথ মডিউল ব্যবহার করে যেমন মাইক্রোকন্ট্রোলার ভিত্তিক যেকোন প্রজেক্টে ব্লুটুথ ফিচার যুক্ত করা যায়, তেমননি esp8266 মডিউল ব্যবহার করে যেকোন প্রজেক্টকে ওয়াইফাই কন্ট্রোলড করে ফেলা যায়। নিচে esp8266 মডিউলের একটি ছবি দেওয়া হল।

Esp8266 মডিউল - SKJOY
Esp8266 মডিউল

২০১৩ সালের ডিসেম্বরে esp8266 মডিউল প্রকাশিত হবার পর ২০১৪ সালের অক্টোবরে NodeMcu esp8266 মডিউলকে সাথে নিয়ে পরিপূর্ণ একটি ডেভেলপমেন্ট বোর্ড হিসাবে তাদের যাত্রা শুরু করে। এই বোর্ডে নিজস্ব মাইক্রোকন্ট্রোলার ভিত্তিক প্রসেসর, মেমরি, স্টোরেজ, I/O পিন সহ ইউএসবির মাধ্যমে কম্পিউটারের সাথে কমিউনিকেশনের জন্য নিজস্ব ইউএসবি টু টিটিএল কনভার্টার রয়েছে। এবার চলুন এই বোর্ডের স্পেসিফিকেশন দেখে নেওয়া যাক।

Specification of NodeMcu esp8266

 

Developer ESP8266 Opensource Community
Type Single-board microcontroller
Operating system XTOS
CPU ESP8266
Memory 128kBytes
Storage 4MBytes
Power USB
I/O Pins 12

কি কাজে ব্যবহার করা যাবে?

উপরেই বলেছি এই বোর্ডে বিল্টইন ভাবে ওয়াইফাই রয়েছে। তাই এটি দিয়ে ইন্টারনেট নির্ভর নানান রকমের প্রজেক্ট করা যাবে। এছাড়া যেকোন এনালগ ইলেকট্রনিক্সের প্রজেক্টকে এটি দিয়ে ইন্টারনেট কন্ট্রোলড করে ফেলা যাবে।

অনেকের মনে হয়ত প্রশ্ন আসছে কিভাবে NodeMcu esp8266 বোর্ড দিয়ে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডিভাইস কন্ট্রোলড করা যাবে। তাদেরকে বিষয়টা একটু ক্লিয়ার করে দিই। যেহেতু এই বোর্ডে ওয়াইফাই রয়েছে তাই এটি ব্যবহার করে ইন্টারনেট ভিত্তিক প্রজেক্ট করতে গেলে অবশ্যই এই বোর্ডটিকে আপনার বাসায় থাকা ওয়াইফাই রাউটারের সাথে কানেক্ট করতে হবে(প্রোগ্রামের মাধ্যমে)।

হ্যাঁ, আপনি ঠিকই ধরেছেন, ইন্টারনেট লাগবে। এখন আপনার বাসায় যদি ওয়াইফাই রাউটার এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট না থাকে তাহলে কি আপনি এই বোর্ডটি করতে পারবেন না? অবশ্যই পারবেন, আপনার পুরানো ফোনকে ওয়াইফাই হটস্পট হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন কোনরকম সমস্যা ছাড়ায়। আমি এভাবেই ব্যবহার করি। একদিকে এই বোর্ডটি আপনার বাসায় ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড থাকবে, অন্যদিকে আপনার স্মার্টফোনে থাকা অ্যাপস(প্রয়োজন অনুযায়ী ডেভেলপ করতে হবে) থেকে আপনি কমান্ড দিয়ে আপনার কাঙ্খিত কাজটি করতে পারবেন পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে। নিচের ভিডিওতে আমার ডেভেলপ করা এমন একটি অ্যাপস দেখতে পারবেন।

আর বিষয়টা এমন না যে কেবলমাত্র ইন্টারনেট ভিত্তিক প্রজেক্ট ছাড়া এই বোর্ড অন্যকোন প্রজেক্টে ব্যবহার করা যাবেনা। সাধারণ কাজ গুলোও NodeMcu esp8266 বোর্ড দিয়ে করা সম্ভব। এই বোর্ডের একটি ADC(এনালগ টু ডিজিটাল কনভার্টার) পিন রয়েছে। এছাড়া বাকি ইনপুট আউটপুট পিনগুলোর মধ্যে অনেকগুলো পিন open-drain/interrupt/PWM/ সার্পোটেড।

NodeMcu esp8266 বোর্ডের বিল্টইন ওয়াইফাই থাকায় এটি ব্যবহার করে ইন্টারনেট নির্ভর প্রজেক্ট ছাড়াও কেবলমাত্র ওয়াইফাই নির্ভর প্রজেক্ট করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে এই বোর্ড একটি ওয়াইফাই হটস্পট হিসাবে কাজ করবে। আপনি আপনার ফোনকে সেই হটস্পটের সাথে কানেক্ট করবেন। ব্রাউজারে গিয়ে একটি নির্দিষ্ট আইপি এড্রেস ব্রাউজ করলে প্রোগ্রাম অনুযায়ী সেখানে ইউজার ইন্টারফেস পাবেন। এরপর সেখান থেকে বাটনে ক্লিক করে যেকোন লোডকে নিয়ত্রণ করতে পারবেন।

IOT নির্ভর প্রজেক্ট নিয়ে আলোচনা

চলুন এবার একটি IOT নির্ভর প্রজেক্টের বাস্তব ব্যবহার সম্পর্কে কিছু আলোচনা করা যাক, মনে করুন আপনি সাধারণত ৯ টায় অফিসে যান, আর ৫ টায় বাসায় ফিরে আসেন। আপনি বাসায় একা থাকেন। এখন ভাবুন তো আপনি অফিস থেকে বেরিয়ে ফোন হাতে নিয়ে বললেন, “আমি বাসায় আসছি”। আর এদিকে আপনার বাসা বাইরের তাপমাত্রা মেপে এসি কিংবা ফ্যান চালু করে দিলো। বাসায় এসে দরজার সামনে দাঁড়ালেন, উপরে থাকা ক্যামেরাটি আপনার ফেস এনালাইসিস করে দরজা খুলে দিলো। আপনি রুমে প্রবেশ করলেন, শীতল একটা পরিবেশ পেলেন। কিছুক্ষণ পর আপনার মুড অনুযায়ী মিউজিক প্লেয়ারে একটি মিউজিক বেজে উঠল। আপনি স্নানে যাবেন, গিয়ে দেখলেন বাইরে অনেক গরম থাকলেও স্নানের জল ঠান্ডা।

এই যে আপনার একটি কমান্ডেই আপনি বাসায় আসার আগেই বাসায় থাকা যন্ত্রগুলো নিজেদের মধ্যে কথা বলে তাদের কাজ শুরু করে দিলো এসবই হচ্ছে IOT নির্ভর প্রজেক্টের বিশেষত। IOT টেকনোলজি অনুযায়ী এটা খুব ছোট একটা উদাহরণ মাত্র। বললে শেষ হবেনা যে আজ IOT প্রযুক্তি কতটা উন্নত আর তা ব্যবহারে কি ধরণের জটিল কাজ গুলো করে ফেলা যায়।

চ্যাটিং এর জন্য তো আমরা ফেসবুক মেসেঞ্জার প্রায় সবাই করি। তাইনা? এখন যদি ফেসবুক মেসেঞ্জার দিয়ে কোন একটা নির্দিষ্ট পেজে মেসেজ দিয়ে আপনার বাসার লাইট ফ্যান কন্ট্রোল করা যায় তাহলে নিশ্চয় মন্দ হবেনা? অবিশ্বাস্য লাগছে? দেখে নিন নিচের ভিডিওটি।

আচ্ছা যদি না লিখে ফোন মুখের সামনে নিয়ে কথা বলে একই কাজ করা যায় তাহলে নিশ্চয় আরো ভাল হয় তাইনা? সেটাও সম্ভব। দেখুন নিচের ভিডিও টি।

এভাবে বললে শেষ হবেনা উদাহরণ। এরকম দারুণ দারুণ সব প্রজেক্ট করে ফেলা যায় NodeMcu esp8266 বোর্ডটি দিয়ে।

NodeMcu esp8266 এর দাম কত? কোথায় পাবো?

এতটা লেখা পড়বার পর নিশ্চয় আপনার এই বোর্ড সম্পর্কে আগ্রহ তৈরী হয়েছে? আর হয়ত ভাবছেন এই বোর্ডের দাম হয়ত অনেক টাকা। আসলে বিষয় টা সেরকম না। এই বোর্ডের জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ এর সহজলভ্যতা এবং সল্পমূল্য। আপনার জেলা শহরের ইলেকট্রনিক্স দোকান গুলোতে এই বোর্ডটি নাও পেতে পারেন। কিন্তু সহজে অনলাইন শপ গুলোতে পেয়ে যাবেন। এছাড়া ঢাকায় থাকলে, নবাবপুর, স্টেডিয়াম মার্কেট, পাটুয়াটুলীর ইলেকট্রনিক্স মার্কেট গুলোতে NodeMcu esp8266 বোর্ডটি পাইকারী এবং খুচরা দামে পেয়ে যাবেন মাত্র ২৫০-৪৫০ টাকায়। আমি ২.২৫ ডলার দিয়ে আলীএক্সপেস থেকে এনেছিলাম।

প্রোগ্রামিং কি অবশ্যই জানা প্রয়োজন এর জন্য?

হ্যাঁ, অবশ্যই। সি প্রোগ্রামিং এর বেসিক জানলেই আপনি এই বোর্ড নিয়ে সহজেই কাজ করতে পারবেন। ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণে এই বোর্ডের নানান প্রজেক্টের সোর্স কোর্ড পেয়ে যাবেন। আরডুইনো ব্যবহারের পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকলে আরো সহজ হবে। এছাড়া প্রজেক্টের জন্য এন্ড্রয়েড অ্যাপস ডেভেলপমেন্টের প্রয়োজন হবে, তার জন্য শিখতে হবে জাভা প্রোগ্রামিং। অবশ্য উপরে বর্ণিত কোন ল্যাঙ্গুয়েজ নানা শিখেও আপনি নানান রকমের প্রজেক্ট করতে পারবেন কেবলমাত্র কপি পেষ্ট করে। 😛

মূলত এটায় ছিল NodeMcu esp8266 সম্পর্কে আজকের ব্লগ। জানিনা কতটা বোঝাতে পেরেছি। তবে চেষ্টা করেছি। কোথাও কোন বিষয় বুঝতে অসুবিধা হলে কমেন্ট করে জানাবেন। চেষ্টা করবো সেটা ক্লিয়ার করার।

আমাদের পরবর্তী ব্লগে আমি দেখাবো কিভাবে আরডুইনো আইডিইকে NodeMcu esp8266 এর জন্য কোড লেখা এবং আপলোডের জন্য উপযোগী করা যায়। সেই অব্দি ভাল থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন। কথা হবে পরবর্তী ব্লগে।

S.k.joy

খুব সাধারণ একজন আমি, গ্রামের ছেলে। হয়ত আপনার ভাবনার কিংবা কল্পনার থেকেও সাধারণ। ভাল লাগে প্রোগ্রামিং, ডিজাইন আর ইলেকট্রনিক্স। আর এসব নিয়েই দিন কেটে যায়। একা থাকলেও একাকীত্ব আমাকে ছুতে পারেনা। কাজের ব্যাপার একটু বেশী স্বাধীন মানুষ আমি। মুক্ত বাতাসের আমার অভাব নেই।