Skip to main content
আসুন পাইথন শিখি - SKJOY

আসুন পাইথন শিখি – পাইথন দিয়ে গাণিতিক হিসাব নিকাশ।

নমস্কার! সুপ্রভাত! স্বাগত আপনাকে আজকের ব্লগে। আসুন পাইথন শিখি টিউটোরিয়াল সিরিজের গত পর্বে আমরা পাইথন প্রোগ্রামিং এর জন্য উইন্ডোজে পাইথন ইন্সটল এবং প্রথম প্রোগ্রাম লিখেছিলাম। আজকের পর্বে আমরা দেখব পাইথন দিয়ে গাণিতিক হিসাব নিকাশ কিভাবে করতে হয়।

পাইথনের ইন্টারপ্রেটার একটি ক্যালকুলেটর এর ন্যায় কাজ করে। এখানে সহজেই যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ করা যায়। চলুন দেখে নিই কিভাবে।

পাইথন দিয়ে গাণিতিক হিসাব নিকাশ

প্রথমে উইন্ডোজের Command Prompt এপ্লিকেশনটি ওপেন করুন। এবার python টাইপ করে ইন্টার প্রেস করুন। তাহলে পাইথনের ইন্টারপ্রেটার চালু হয়ে যাবে। এবার চলুন ছোট একটি যোগ অংক করে ফেলা যাক। Command Prompt এ লিখুন 7+8 তারপর ইন্টার প্রেস করুন। আউটপুট আসবে 15

পাইথন দিয়ে গাণিতিক হিসাব নিকাশ - SKJOY
পাইথন দিয়ে গাণিতিক হিসাব নিকাশ

একই ভাবে 55-7*6 কমান্ড দিলে আউটপুট আসবে 13 , এখানে ১৫ এবং ১৩ হল ইন্টিজার টাইপ ডেটা। এবার যদি আমরা (55-7*6)/2 কমান্ড দিই তাহলে আউটপুট আসবে 6.5 , ফলাফলে এখানে যেহেতু দশমিক সংখ্যা রয়েছে তাই এটি float টাইপ ডেটা।

তাহলে এটা মনে রাখা জরুরি যে সাধারণ সংখ্য (৪৫৬৬৫৬) হল ইন্টিজার টাইপ ডেটা এবং দশমিক সংখ্যা (৪১.৪৫) হল ফ্লোট টাইপ ডেটা।

ব্যাকেট ব্যবহার করে আমরা নির্ধারণ করে দিতে পারি যে, কোন অংশটুকুর ক্যালকুলেশন আগে হবে। যেমন 12-(4+4) কমান্ড দিলে আউটপুট আসবে 4

নাম্বারের আগে মাইনাস (-) চিহ্ন ব্যবহার করে আমরা নেগেটিভ নাম্বার নির্ধারণ করে দিতে পারি। যেমন -10+3 কমান্ড দিলে আউটপুট আসবে -7

পাইথনে পাওয়ার (**) অপারেটর ব্যবহার করেও হিসাব নিকাশ করা যায়। যেমন 3**6 কমান্ড দিলে আউটপুট আসবে 729

সাধারণ অংকের মত পাইথনেও আপনি কোন সংখ্যাকে ০ দিয়ে ভাগ করতে পারবেন না। যেমন আমরা যদি 12/0 কমান্ড দিই তাহলে আউটপুটে নিচের মত ইরর আসবে।

Traceback (most recent call last):
File “<stdin>”, line 1, in <module>
ZeroDivisionError: division by zero

ভিডিও

প্যাকট্রিসের অংশটুকুর স্ক্রিন রেকর্ড করা হয়েছে। যা আপনার শেখার জন্য সহায়ক হবে। আসুন পাইথন শিখি টিউটোরিয়াল সিরিজের প্রত্যেকটা টিউটোরিয়ালের শেষে এরকম ভিডিও দেওয়া থাকবে।

এই ছিল পাইথন নিয়ে আজকের টিউটোরিয়াল। কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। পোষ্টের নিচে ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করার সুবিধা রয়েছে। তাছাড়া ফেসবুকে আমাকে পাবেন এখানে। ভাল থাকবেন। কথা হবে পরবর্তী ব্লগে। হ্যাপি প্রোগ্রামিং।

Facebook Comments

S.k.joy

খুব সাধারণ একজন। বসবাস গ্রামে। জন্ম, বেড়ে উঠা এখানেই। অসম্ভব ভালবাসা এই গ্রামীন জীবন, প্রকৃতি আর পরিবেশের প্রতি। কাজ পড়াশোনার ক্ষেত্রে বার বার সুযোগ এলেও শহরবাসী হয়ে উঠতে পারিনি শেষ পর্যন্ত। শহরের অতি আধুনিকতা, কংক্রিটে মোড়া সুউচ্চ অট্টেলিকায় বন্দি জীবন আমায় কখনও আর্কষিত করতে পারিনি। খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে মেঠো পথে বেরিয়ে পড়ি সকালটাকে উপভোগ করতে। রাস্তার দুপাশে সারি সারি গাছ গুলোতে জেগে উঠা পাখিগুলো আমায় স্বাগত জানায়। বুক ভরে নিশ্বাস নিই। শিশিরে ভেজা ঘাস গুলো প্রতি মুহুর্তে সকালের কোমলতাকে জানান দেয়। সূর্যের রোদ সবার আগে গায়ে মেখে ফিরে আসি। দাদু-ঠাম্মা, ছোট ছোট ভাই বোন সবাইকে পরিবার। এইতো জীবন। খুশিতে ভরা জীবন। দূরে গিয়ে সবার থেকে আলাদা হয়ে নিজের মত থাকার মধ্যে জীবনের কোন মানে খুঁজে পাইনা আমি।